বেফাক বোর্ড দেওনা মাদ্রাসার নিবন্ধন স্থগিত ঘোষণা করেছে

বিজয় বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত ৮, আগস্ট, ২০২২, সোমবার
বেফাক বোর্ড দেওনা মাদ্রাসার নিবন্ধন স্থগিত ঘোষণা করেছে

গত ২৫ জুন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে একটি চিঠি দেন হেফাজতে ইসলামের নায়েবে আমির, দেওনার পীর অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান চৌধুরী।

চিঠির বিষয়টি জনসম্মুখে আসার পর ঘটে বিপত্তি। নড়েচড়ে বসে দেশের কওমি মাদরাসার দায়িত্বশীলগণ। এরই প্রেক্ষিতে গতকাল রোববার (৭ আগস্ট) খাস কমিটির মিটিং ডাকে কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ।

বোর্ডের দায়িত্বশীলদের মতামতের ভিত্তিতে নেয়া হয় গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত-

সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় দেওনার পীর অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান চৌধুরী পরিচালিত গাজীপুরের কাপাসিয়ায় অবস্থিত ‘মাদরাসা দাওয়াতুল হক দেওনা’র নিবন্ধন সাময়িক স্থগিত করা হয়।

অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক প্রেরিত চিঠির ওপর ভিত্তি করে আগামী ১০ আগস্ট (বুধবার) ডাকা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের সভায় অংশগ্রহণে বোর্ডের পক্ষ থেকে অপারগতা প্রকাশ করা হয়।

এর আগে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে জরুরি বৈঠক করেছে দেশের কওমি মাদরাসাগুলোর সর্বোচ্চ সংগঠন আল হাইআতুল উলয়া লিল জামিআ’তিল কওমিয়া বাংলাদেশের একটি প্রতিনিধি দল। বৈঠকে সংস্থাটিও আগামী ১০ আগস্ট (বুধবার) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিতব্য সভায় অংশগ্রহণে অপারগতা প্রকাশ করে।

এছাড়া হেফাজতে ইসলামের নায়েবে আমির, দেওনার পীর অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান চৌধুরী’র উক্ত চিঠিকে তার একান্ত ব্যক্তিগত বলে দাবি করে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। এর সঙ্গে সংগঠনটির ন্যূনতম কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই বলেও জানানো হয়।

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 13
    Shares