দেখেছি

বিজয়বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত ৫, ডিসেম্বর, ২০২১, রবিবার
<strong>দেখেছি</strong>

দেখেছি
সিয়াম আহমাদ

~~~~~~~~~~~
ভাগ্যের অর্গল পথ মাড়িয়ে এসেছি এতোটা দূর-
দেখেছি বিচিত্র মুখোশ, ক্রুদ্ধ আকাশ, ব্যাধির সমুদ্দুর
চিনেছি বন্ধু-স্বজন-অপ্রিয়জন
বুঝেছি ধুঁকে-ধুঁকে মরে অভাগার মন

দেখেছি ভীষণ ছন্দহীন- অনেক রাত হতে দিন
ভেসে আসে বড় বড় প্রাসাদের অস্পষ্ট স্বর
কান পেতে শুনেছি তার গহীন ভিতর
গুপ্ত চাতকের বিধুর আর্তনাদ,-
প্রগাঢ় বিষণ্ণ কিছু কিছু দিন
হেটেছি খুব একান্ত সঙ্গীহীন
আবার নিমিষের অসহ্য সুখ
আমায় করেছে কখনো ভাষাহীন-মূক।

দেখেছি অনেক অম্ল-রোগের মত প্রেম-ভালোবাসা
সুর্যের আলো এসে মুছে দেয় মাঘের কুয়াশা
সাতদিন কাটে যার মুমূর্ষু মলিন
কিছুদিন পরে হয়ে যায় সবটুকুই বিলীন

দেখেছি তরুণ-যুবার চোখে ক্লান্তি,
বিচারকের বুকে ভয়
রঙিন খাচায় কেটে যায় যুবকের হিরন্ময় সময়
দেখেছি ক্ষুধা-দৈন্য-শোক-ইতিহাস-মানবতা
শোভিত মঞ্চে-মঞ্চে চরা দামে কেনা-বেচা হয়
এসব এখানে নিত্য-স্বাভাবিক, নয় বিস্ময়

দেখেছি মানুষ যে ভাষায় কথা বলে হাসে-কাঁদে
হয় অভিমানী
তার বর্ণ আর শব্দ ঠুকরে খায় ক্ষুধার্ত গৃধিনী
দেখেছি যে মাঠে কৃষক তার শ্বেত রক্ত ঝরিয়ে করেছে ফসলের চাষ
সেখানে জাতীর অন্ন আর কৃষকের ভাগ্য জন্মেছে বারো মাস-;

সব নিলামে তুলেছে শোষক
বাংলার আকাশে-বাতাসে আজ মাতম তুলে
কৃষকের নাভিশ্বাস

দেখেছি যে কিশোর এক ঝাক স্বপ্ন পুষে শৈশব গড়েছিল- তার যৌবন হরণ করেছে
বিগড়ে যাওয়া মাতাল রাষ্ট্র

দেখেছি অনেক শহর-নগর জনপদ উত্থিত হয়
আবার দেখেছি সভ্যতা নামক প্রেত এসে
পৃথিবীতে হেনেছে বিপর্যয়।

বিজয়বাংলা/এইচ কে/০৫-১২-২০২১

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 106
    Shares