জ্বালানিসহ দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে মানুষ দিশেহারা নয় সর্বহারা হয়ে যাচ্ছে -মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ

বিজয়বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত ১০, আগস্ট, ২০২২, বুধবার
<strong>জ্বালানিসহ দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে    মানুষ দিশেহারা নয় সর্বহারা হয়ে যাচ্ছে -মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ</strong>

গাজী ইসমাঈল ভাঁওয়ারী
বিজয় বাংলা বিশেষ প্রতিনিধি

ঢাকা, ১০ আগস্ট’২২
বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ বলেছেন, জ্বালানিসহ দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে বৃদ্ধিতে মানুষ শুধু দিশেহারা নয় বরং মানুষ সর্বহারা হয়ে যাচ্ছে। মানুষের পেটে ভাত না থাকলে ঋণ করে দেশের উন্নয়ন করে কোনো লাভ নেই। মানুষ যাতে দু বেলা ভাত খেয়ে বাঁচতে পারে সে ব্যবস্থা করুন। না হয় দেশের পরিস্থিতি ভালো থাকবে না। তিনি আরও বলেন, সারাদেশে অধিকহারে লোডশেডিং এর কারণে মানুষ কষ্টে আছে। সরকারি অফিস আদালতে এখনও যে পরিমান বিদ্যুৎ অপচয় ও বিদ্যুৎ খাতে দুর্নীতি হচ্ছে। তা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করলে এতো লোডশেডিং করতে হবে না। তিনি আরও বলেন, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের গায়ে আগুন লেগেছে। বাজার নিয়ন্ত্রন করতে সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছে। একজন সাধারণ মানুষ তার আয় দিয়ে কোনো ভাবেই চলতে পারছে না। জিনিসপত্রের দাম নিয়ন্ত্রণ করুন।
তিনি আরও বলেন, সরকার বলছেন যে বিশ্ব বাজারের সাথে সমন্বয় করে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে। কিন্তু আমরা দেখলাম বিশ্ব বাজারে যখন জ্বালানি তেলের দাম কমছে ঠিক তখনি রাতের আধারে বাংলাদেশে জ্বালানি তেল ডিজেল, পেট্রোল ও অকটেনের দাম ৫১ভাগ বৃদ্ধি করা হয়েছে। তাতে পরিবহন খাতে ভাড়া বেড়েছে এবং দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই অবিলম্বে জ্বালানি তেল অকটেন ও পেট্রোল এর বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহার করতে হবে। অন্যথায় দেশের জনগণ রাস্তায় নেমে আসলে তখন ক্ষমতায় থাকা যাবে না।

আজ বিকেলে বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে জ্বালানী তেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস ঢাকা মহানগরীর উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ঢাকা মহানগরীর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাওলানা নূর মোহাম্মদ আজিজীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল মুমিনের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় অফিস ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুর রহমান হেলাল, মাওলানা এনামুল হক মুসা, মাওলানা আবুল হাসানাত জালালী, প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা হারুনুর রশীদ ভূইয়া, সহ-বায়তুল মাল সম্পাদক মাওলানা ফজলুর রহমান, সহ-সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মাওলানা শরীফ হোসাইন, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য মাওলানা রুহুল আমীন খান, ঢাকা মহানগরীর সহ-সভাপতি মাওলানা হাসান জুনাঈদ, মাওলানা ছানা উল্লাহ, সহ-সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আনোয়ার হোসাইন রাজী, মাওলানা শামসুল আলম, যুব মজলিস ঢাকা মহানগরী সভাপতি মাওলানা রাকিব হোসাইন প্রমুখ। সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সুরমা টাওয়ারের সামনে এসে শেষ হয়।

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 2
    Shares