শাবির ভিসির বাসবভনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন

বিজয়বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত ২৪, জানুয়ারি, ২০২২, সোমবার
<strong>শাবির ভিসির বাসবভনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন</strong>

বিজয় বাংলা অনলাইন | শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) ভিসি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগের দাবিতে চলমান আন্দোলন ঘিরে নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ভিসির বাসভবন ঘেরাও করেছেন। শিক্ষামন্ত্রীর সাথে আলোচনার পরেও ভিসির পদত্যাগের দাবিতে অনড় রয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। গতকাল রোববার বিকেলে শিক্ষার্থীরা ভিসির বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন। শিক্ষার্থীরা ঘোষণা দেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ছাড়া ভিসির বাসভবনের ভেতরে আর কাউকে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। এসময় শিক্ষার্থীরা ভিসির বাসবভনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। শিক্ষার্থীরা বলেন, পরিস্থিতি যেভাবে এগোচ্ছে, এতে আমাদের বাধ্য করা হচ্ছে আরও কঠোর কর্মসূচির দিকে যেতে। এভাবে চললে ভবিষ্যতে ভিসির বাসভবনের জরুরি পরিষেবা বন্ধ করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থী নাফিজা আনজুম বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণভাবে ভিসির বাসভবনের সামনে অবস্থান নেব। এসময় পুলিশ ছাড়া আর কাউকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। আমরা অবরুদ্ধ করছি, বিষয়টি ঠিক এমন না; আমরা ভিসির বাসভবনের ভেতরে কাউকে প্রবেশ করতে দেব না। আমরা ওখানে বসে অনশন করছি আর সবাই গিয়ে ভিসির সঙ্গে দেখা করবেন, সেটা হয় না। এ কারণে এই কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে। এদিকে অনশনের একশ’ ঘণ্টা পূর্ণ উপলক্ষে ক্যাম্পাসে প্রতিবাদী মিছিল করার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। গত ১৩ জানুয়ারি থেকে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের প্রভোস্টের পদত্যাগসহ তিন দফা দাবিতে আন্দোলনে নামেন শাবির শিক্ষার্থীরা। পরে ভিসির পদত্যাগের দাবিও সামনে আসে আন্দোলনে।
গত ১৬ জানুয়ারি বিকেলে তিন দফা দাবি আদায়ে ভিসিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইআইসিটি ভবনে অবরুদ্ধ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে পুলিশ ভিসিকে উদ্ধার করতে গেলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই সময় পুলিশ সাউন্ড গ্রেনেড, টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট ছুড়ে শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হন। পুলিশ ৩০০ জনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে মামলা করে। গত ১৯ জানুয়ারি বিকেলে ভিসির পদত্যাগের দাবিতে তার বাসভবনের সামনে আমরণ অনশন শুরু করে ২৩ জন শিক্ষার্থী। একই দাবিতে পরদিন বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে কয়েকশো শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসে মশাল মিছিল বের করেন।
ভিসির পদত্যাগে সরকারি পদক্ষেপ কামনা শিক্ষক সমিতির : চলমান পরিস্থিতিতে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির পদত্যাগের বিষয়ে সরকারের পদক্ষেপ কামনা করে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। গতকাল রাত সাড়ে আটটায় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. তুলসী কুমার দাস স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের ওপর বর্বরোচিত পুলিশি হামলার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করা হয়। অবিলম্বে সরকার কর্তৃক নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠন করে দায়ীদের চিহ্নিত করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়। বলা হয়, অনশনরত শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙানোর জন্য যা যা দরকার তা অনতিবিলম্বে করতে হবে, এ ব্যাপারে সরকারের সহযোগিতা কামনা করা হয়। এছাড়াও ভিসির পদত্যাগের বিষয়টি সরকারের এখতিয়ারভুক্ত দাবি করে অতি দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয়। পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের প্রতি কোন রকম সহিংসতায় সম্পৃক্ত না হওয়ার উদাত্ত আহ্বান জানানো হয়েছে।
পরবর্তীতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা শিক্ষক সমিতির প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বলেন, শিক্ষকবৃন্দ আমাদের অনশন ভাঙানোর জন্য যা যা করার দরকার অনতিবিলম্বে তা করার জন্য এবং ভিসির পদত্যাগে সরকারের সহযোগিতা চেয়েছেন। এতে আমরা অনেক খুশি হয়েছি। তবে আমরা এখনই আমাদের কর্মসূচি থেকে সরে যাচ্ছি না। আমাদের অনশন চলমান থাকবে এবং ভিসি তার বাংলো থেকে বের হওয়া পর্যন্ত আমরা প্রতিদিন ভিসির কুশপুত্তলিকা দাহ করবো।

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 17
    Shares