বন্যা প্লাবিত অঞ্চলে জরুরী উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতা জোরদার করতে হবে- খেলাফত মজলিস

বিজয়বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত ১৮, জুন, ২০২২, শনিবার
<strong>বন্যা প্লাবিত অঞ্চলে জরুরী উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতা জোরদার করতে হবে- খেলাফত মজলিস</strong>

বন্যাদুর্গতদের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে জরুরী ভিত্তিতে পাঁচশত কোটি টাকা বরাদ্দের দাবী খেলাফত মজলিসের

বিজয় বাংলা অনলাইন | ঢাকা, ১৮ জুন ২০২২: ভয়াবহ বন্যাকবলিত সিলেট, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনসহ বৃহত্তর সিলেট অঞ্চলকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা করে জরুরী উদ্ধার তৎপরতা ও ত্রাণ তৎপরতা জোরদারের আহŸান জানিয়েছে খেলাফত মজলিস। আজ প্রদত্ত এক যৌথ বিবৃতিতে খেলাফত মজলিসের আমীর অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্ম¥ ইসহাক ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বন্যাদুর্গত মানুষের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, টানা বর্ষণ আর ভারত থেকে আসা ঢলের পানি ও টানা বর্ষণে সিলেট নগরীসহ সিলেট, সুনামগঞ্জ ও নেত্রকোন জেলার লাখ লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পরেছে। এদিকে ফারাক্কা বাঁধের গেট খুলে দেয়ায় কুড়িগ্রাম, জামালপুর অঞ্চলে বন্যা পরিস্থির অবনতি হচ্ছে। বানের পানির তীব্র ¯্রােতে গবাদী পশু, বাড়ী-ঘর সব কিছু ভেসে যাচ্ছে। বন্যাপরিস্থিতি আরো অবনতির দিকে যাচ্ছে। পুরো সিলেট অঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। মানুষ বাঁচার জন্য আকুতি করছে। এ অবস্থায় বন্যা প্লাবিত অঞ্চলসমূহকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা করে জরুরী ভিত্তিতে উদ্ধার তৎপরতা ও ত্রাণ সহায়তা জোরদার করতে হবে। সিলেট-সুনামগঞ্জে চলমান সেনাবাহিনীর উদ্ধার তৎপরতায় প্রয়োজনের সামরিক হেলিকপ্টার ব্যবহার করতে হবে।
বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বন্যাকবলিত অঞ্চলে উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে জরুরী ভিত্তিতে পাঁচশত কোটি টাকা বরাদ্দের দাবী জানান। একইসাথে তাঁরা সমাজের সামর্থবানদেরকেও জরুরীভিত্তিতে বন্যাকবলিত এলাকার দুর্গত মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 28
    Shares