ভারতে বৃষ্টিপাতের প্রভাবে তিস্তায় ফের পানি বাড়ার আশঙ্কা

বিজয়বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত ১৮, জুন, ২০২২, শনিবার
<strong>ভারতে বৃষ্টিপাতের প্রভাবে তিস্তায় ফের পানি বাড়ার আশঙ্কা</strong>

পানি বাড়ার আশঙ্কায় তিস্তা ব্যারেজের সবকটি জলকপাট খুলে রাখা হয়েছে। ছবি : সংগৃহীত

অনলাইন ডেস্ক | শুক্রবারের পর আজ শনিবার রাতে আবারও পানি বাড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে তিস্তা নদীতে। ভারতে বৃষ্টিপাত বেশি হওয়ায় এই সম্ভাবনা দেখছেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা।

পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে কাজ করছেন পাউবোর সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। আজ শনিবার দুপুরে তিস্তা নদীর বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শন করেছেন পাউবোর অতিরিক্ত মহাপরিচালক জ্যোতিপ্রসাদ ঘোষ। এ সময় তিনি তিস্তা ব্যারেজ, ফ্লাড বাইপাস ও বিভিন্ন বাঁধ পরিদর্শন করেন।

বাঁধ পরিদর্শন শেষে তিনি বলেন, বন্যায় যাতে নদীর কোনো স্থাপনা ক্ষতি না হয় সে ব্যাপারে পাউবো সতর্ক এবং যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় পাউবো প্রস্তুত রয়েছে।

গতকাল শুক্রবার সকাল ছয়টায় উজানের ঢলে তিস্তায় পানি বিপদসীমার ১৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও পরে পানির তীব্রতা কমে নিচ দিয়ে প্রবাহিত হতে থাকে, যা আজও অব্যাহত রয়েছে। তবে আজ শনিবার সন্ধ্যা ছয়টায় বিপদসীমার ৫ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে নীলফামারীর ডালিয়া পয়েন্টে।

পাউবো ডালিয়া ডিভিশনের নির্বাহী প্রকৌশলী আসফাউদৌলা জানান, আজ শনিবার তিস্তায় পানি বিপদসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। ভারতে বৃষ্টিপাত বেশি হওয়ায় রাতে পানি বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যারেজের সবকটি জলকপাট খুলে রাখা হয়েছে।

পানি বৃদ্ধির ফলে নদীবেষ্টিত টেপাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের দশটি গ্রাম থেকে পানি নামতে শুরু করলেও জলাবদ্ধতা এখনো রয়েছে। মসজিদপাড়া, টাবুরচর, পুর্ব খড়িবাড়ি, বাঘেরচর, জিঞ্জিরপাড়া এবং ঝুনাগাছ চাপানি ইউনিয়নের কেল্লাপাড়া, ছাতুনামার চর, ভেন্ডাবাড়ির চরে প্রায় তিনশ পরিবার দুর্ভোগে পড়েছেন।

ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন জানান, উপজেলার ১৫ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে এসব বিতরণ করা হচ্ছে।

সুত্র:এনটভি

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 16
    Shares